বাংলাদেশ বিমানবাহিনী ২০১৭ সালে ৮+৪=১২ টি এম.আর.সি.এ ক্রয়ের টেন্ডার ছেড়েছিল।প্রথমত সু ৩০ নেবার কথা থাকলেও রাশিয়া চালাকি করে সু৩০ এর নামে বাংলাদেশকে সু২৭ অফার করে,কিন্ত বাফ সে অফার রিজেক্ট করে দেয়।বাংলাদেশ বিমান বাহিনী বরাবরই হেভী ফাইটার হিসেবে সু৩৫ কেই প্রেফার করে আসছে।অবশ্য এরই মধ্যে মিয়ানমার রাশিয়া থেকে ৬ টি সু৩০ নেবার কথা চূড়ান্ত করে।রাশিয়া ঠিকই তাদের সেকেন্ডহ্যান্ড সু-৩০ কে ঘষামাজা আর নতুন পেইন্টিং করে মিয়ানমারের হাতে তুলে দিচ্ছে।ঠিক একই কাজ রাশিয়া বাংলাদেশের সাথেও করতে চেয়েছিল।

রাশিয়া এবং মিয়ানমারের মাঝে করা ২০০ মিলিয়ন ডলারের চুক্তি অনুযায়ী রাশিয়া মিয়ানমারকে ৬ টি সেকেন্ডহ্যান্ড এবং রিফার্বিশড সু৩০ হেভী ফাইটার সরবরাহ করবে।যেখানে আমাদের প্রতিটি ইয়াক-১৩০ এর দাম ১৫ মিলিয়ন মার্কিন ডলার সেখানে মিয়ানমারের কিনা সেকেন্ডহ্যান্ড সু৩০ এর দাম দাড়াচ্ছে মাত্র ৩০-৩২ মিলিয়ন ডলার।বাংলাদেশের অনেক সমরপ্রেমী মিয়ানমারের সু৩০ কেনার ব্যপারে হতাশ হয়েছিলেন।কারন বাংলাদেশ বিমানবাহিনী ২০১৭ সালে টেন্ডার প্রকাশ করেও যেখানে প্রকাশ্য অগ্রগতি দেখাচ্ছে না,সেখানে মিয়ানমার ঠিকই সু৩০ এর ডিল চূড়ান্ত করে ফেললো কি করে?

এখানে প্রকাশ না করলেই নয় যে সু৩৫ কেনার জন্য মিগ ৩৫ কিনার শর্ত অনুযায়ী মিগ ৩৫ ও কিনতে হতো বিমানবাহিনী কে।আর মিগ৩৫ নেবার ব্যপারে বাফ এবং রাশিয়ার একটি MoU ও স্বাক্ষরিত ছিল।যা পরবর্তীতে চুক্তিতেও রূপান্তরিত করা যেত।তবে,মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র সাম্প্রতিক সময়ে রাশিয়ার উপর অস্ত্র নিষেধাজ্ঞা জারি করায় বি.এ.এফ এবং রাশিয়ার মাঝে করা MoU স্থগিত হয়।আর তা এখনো স্থগিত রয়েছে।তবে পরবর্তীতে চাইলেই বাফ যেকোন সময় মিগ-৩৫ এর ব্যপারে MoU করতে পারবে।তাই আপাতত আজ হোক আর কাল মিগ-৩৫ আসবেই।একই সাথে ২০২২-২০২৩ এর দিকে মিয়ানমার ও মিগ-৩৫ নিতে পারে।তাই এদিক থেকেও মিগ-৩৫ এর বিকল্প বাংলাদেশের কিছুই থাকছে না।আবার সু৩৫ নিতে হলে মিগ-৩৫ বাদ রাখাও চলবে না,কারন বাংলাদেশ বিমান বাহিনী চীন-রাশিয়ার উপরই বিমান কিনবার ব্যপারে নির্ভরশীল ।সুতরাং একদিক প্রেক্ষাপটে বাফ ভবিষ্যতে মিগ-৩৫ এবং এফসি-২০/জে১০ দুটোই অপারেট করতে যাচ্ছে।

Image may contain: airplane and sky

সু৩০SME এর প্রোডাকশন বেশ আগে থেকেই বন্ধ হয়ে গেছে।বাংলাদেশের ৮+৪=১২ টি ফাইটারের জন্য প্রোডাকশন প্লান্ট চালুর কোন সম্ভাবনাও নেই।তাই বলা যায় আমরা ফার্স্ট হ্যান্ড ৮+৪=১২ টি সু৩৫ পেতে যাচ্ছি সামনে…এমন আশা করাটাও কাল্পনিক কি বর্তমান প্রেক্ষাপটে?

No automatic alt text available.

প্রথমত এটি এনালাইসিস লেখা,কোন অফিসিয়াল কনফার্মেশন নয়।বিশ্বাস করবার ও দরকার নেই।পড়ার জন্য পড়ুন এবং ভুলে যান।ভাল না লাগলে এভোয়েড করুন।আপনার মুল্যবান সময়ের জন্য ধন্যবাদ।

Myanmar has bought 6X second hand su30 from Russia with 30 million dollar costing for each su units whereas the jet deal of Burma costs 200 million dollars.Bangladesh Air Force Aired a tender regarding purchase of 8+4=12 units of MRCA in 2017.Russia wanted to sell su27 instead of su30..but baf was not convinced,rather baf opted for su 30 & Russia gave a condition to give su35 if baf orders mig35 (blackmailing at its level best)..BAf & Russia had an MoU for procurement of mig35,which was cancelled due to us sanction on selling Russian Weapon’s.as now at present the production line of su30sme has been shut down & it wont be economical decision for Russia for opening su30 production plant for only 8+4 jets,,so BAF might get su35 instead.

N.B:Its Just an analysis post. Don’t believe it thinking its official confirmation.. avoid this news if this irritates you.

Thank you.

Facebook Comments

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

%d bloggers like this: