বাংলাদেশ নৌবাহিনী এবং ভারতীয় নৌবাহিনীর দ্বিপক্ষীয় ভাতৃত্বপূর্ন সম্পর্ক শীঘ্রই এক অনন্য মাত্রা পেতে চলেছে। আগামী ২৭-২৯ জুন ২০১৮ তে অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে ভারত-বাংলাদেশ আন্তদেশীয় যৌথ নৌ মহড়া “CORPAT”।

ভারতীয় নৌবাহিনীর যুদ্ধজাহাজ আই.এন.এস সাতপুরা এবং আই.এন.এস কাদমাত এর পাশাপাশি ২-৩ টি স্টেট অফ আর্ট P8 এন্টি সাব এয়ারক্রাফট এ মহড়ায় অংশ নিতে যাচ্ছে। এটি হতে যাচ্ছে একাধারে সার্ফেস এবং এন্টি সাব ট্রেইনিং জয়েন্ট এক্সারসাইজ।

Image may contain: ocean, outdoor and water

 

উল্লেখ্য,বাংলাদেশ নৌবাহিনী দুটি পি৩সি অরিয়ন কিনার ব্যপারে জাপানের সাথে কথাবার্তা চালাচ্ছে। পি৮ এর উপস্থিতি নি:সন্দেহে নৌবাহিনীর পি৩সি কিনবার উচ্চাকাঙ্ক্ষা কে আরো বাড়িয়ে তুলবে বলে আশা করা যায়।একই সাথে আমাদের নাবিকগন ভারতীয় পি৮ এবং যুদ্ধসরঞ্জাম এর ইন্সপেকশন এবং বন্ধুত্বপূর্ণ প্রশিক্ষণের মাধ্যমে তাদের কর্মপরিধিকেও বিস্তৃত করতে পারবেন বলে ধারণা করা অমূলক কিছু নয়।

বাংলাদেশ নৌবাহিনীর পক্ষ থেকে আমাদের ২ টি মেরিটাইম পেট্রোল এয়ারক্রাফট Dorniet Do 228NG এবং বি.এন.এস আবু বকর এবং বি.এন.এস ধলেশ্বরী এ যৌথ মহড়ায় অংশ নিবে।

বঙ্গোপসাগরে আগামীকালের ভারত-বাংলাদেশে যৌথ নৌ মহড়া কো অর্ডিনেটেড পেট্রোলে চারটি এয়ারক্রাফট থাকবে। যার মধ্যে দুটি ভারতের দুটি বাংলাদেশের এয়ারক্রাফট থাকবে। মোট দুটি ফ্রিগেট এবং দুটি কর্ভেট থাকবে। দুটি ভারতের দুটি বাংলাদেশের।বাংলাদেশের পক্ষে বিএনএস আবু-বকর ও বিএনএস ধলেশ্বরী এবং DORNIER DO 228NG যৌথ মহড়াই অংশ নিতে চলেছে।এবং ভারতের পক্ষে আইএনএস সাতপুরা ও আইএনএস কাদমত এবং দুটি p8 নেভাল সার্ভাইলেন্স এয়ারক্রাফট অংশ নিবে।

 

Image may contain: ocean, outdoor, water and nature

 

ইতিমধ্যে ভারতীয় জাহাজগুলো বাংলাদেশে এসে পড়েছে।বাংলাদেশ নৌবাহিনীর ক্যাডেট গণ আজ ভারতীয় জাহাজগুলো ঘুরে দেখেছে।ফলে বাংলাদেশ নেভীর ক্যাডেটগণ ভারতীয় জাহাজগুলো সম্পর্কে বাস্তবধর্মী জ্ঞান অর্জন করেছে।তবে নিয়ম অনুযায়ী তারা জাহাজের ওয়ার রুমে প্রবেশ করেনি।

গাইডেড মিসাইল ফ্রিগেট BNS ABU BAKAR ২০১৪ সালে বাংলাদেশ নেভীতে সার্ভিসে আসে।জাহাজটি সার্ভিসে আসার পর থেকে নিয়মিত বিভিন্ন আন্তর্জাতিক নৌ মহড়ায় অংশগ্রহণ করে আসছে।জাহাজটি ২০১৪ সালে চীনে অনুষ্ঠিত ১৪তম ওয়েস্টার্ণ প্যাসিফিক নেভাল সিম্পোজিয়াম এন্ড ইন্ট্যারন্যাশনাল ফ্লিট রিভিউ তে অংশ নেয়।এবং একই সময় মালেয়শিয়া এবং থাইল্যান্ডে শুভেচ্ছা সফর করে। পরেরবছর ১২ ই মার্চ মালেয়শিয়াতে অনুষ্ঠিত LIMA-2015 তে অংশ নেয়।ফিরতি পথে মায়ানমারে শুভেচ্ছা সফর করে।তাছাড়া একই বছর জাহাজটি মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের সাথে CARAT-2015 তেও অংশ নিয়েছিল।

 

No automatic alt text available.

 

গাইডেড মিসাইল কর্ভেট BNS DHALESWARI ২০১১ সালে বাংলাদেশ নেভীতে সার্ভিসে আসে। এ জাহাজটিও বিভিন্ন আন্তর্জাতিক নৌ মহড়ায় অংশগ্রহন করে।২০১১ সালে মালেয়শিয়া অনুষ্ঠিত LIMA-2011তে অংশগ্রহণ করে। ২০১৫ সালে সিঙ্গাপুরে অনুষ্ঠিত IMDEX-2015 এবং CARAT-2015 তে অংশগ্রহণ করে।সম্প্রতি এ বছর ভারতের আন্দামান নিকোবরে অনুষ্টিত 10th EXERCISE MILLAN এ জাহাজটি অংশগ্রহণ করেছিল।

Facebook Comments

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

%d bloggers like this: