বাংলাদেশের আকাশ প্রতিরক্ষার প্রথম ধাপ হল দেশের আকাশ সীমায় নজরদারী নিশ্চিত করা আর তার জন্য প্রয়োজন স্টেট অব দা আর্ট ব্যবস্থার সংযোজন করা। সেই লক্ষ্যকে সামনে রেখে ২০১০সালে  দেশের বিমানঘাঁটি গুলোর পুরানো রাডার গুলো পরিবর্তন করে আধুনিক নতুন প্রজন্মের রাডার দিয়ে প্রতিস্থাপনের পরিকল্পনা গ্রহন করে বিমান বাহিনী। যার অংশ হিসাবে ২০১১ সালে অর্ডার করা হয় ২টি YLC-2A স্টেট অব দি আর্ট রাডার।

YLC-2A হলো গনচীনের নির্মিত একটি L band AESA radar যা বাংলাদেশ বিমানবাহিনী  ২০১৩ সাল হতে ব্যবহার করে আসছে। এটি একটি লং রেঞ্জ হাই অল্টিটিউড 3D AESA (Active electronically scanned array). যা হেভি ইলেকট্রনিক্স কাউন্টার মেজার ব্যবস্থা নিয়ে গঠিত। এটি বাংলাদেশ বিমান বাহিনীর অন্যতম শক্তিশালী রাডার ব্যবস্থা হিসাবে নিয়োজিত আছে। চীন এই রাডার কে এমন ভাবে ডিজাইন করেছে যাতে এটি ৫০০ কি.মি দূরত্ব হতে যেকোন ৪র্থ প্রজন্মের বিমান হেলিকপ্টার ৩০০ কিমি এএর মধ্যে আর্মড ড্রোন(মনুষ্য বিহীন বিমান) ডিটেক্ট করতে সক্ষম । শুধু তাই নয় চায়না দের দাবী অনুসারে এটি F22 অথবা এর সম গোত্রীয় যেকোন ৫ম প্রজন্মের স্টেলথ বিমান কে ২০০ কিমি দুরত্বের মধ্যে ডিটেক্ট করতে সক্ষম। এই রাডারের আরেকটি অনন্য দিক হল এটি হেভি ECM(Electronic Counter Measure) কে উপেক্ষা করে নিজের নজরদারী চালিয়ে যেতে সক্ষম। বাংলাদেশ বিমান বাহিনী বর্তমানে এরকম ২ টি ইউনিট ব্যবহার করছে যা বাংলাদেশ এর আকাশ প্রতিরক্ষার কাজে সদা নিয়োজিত রয়েছে।

এক নজরে এর সাধারন বিবরণী

Bandwidth – L Band 3D AESA
Type – Air serarch Radar.
Power Output -5.5 KW
Detection Range -500km
Accuracy Range -200km (For stealth Object)
.Azimuth: 3600
Height :500 m(R: <200km); 750 m(R: 300km
Other Features –
1.Heavy ECM capacity
2.Frequency diversity
3.Low frequency
4.Advanced programmable digital signal processing.

Facebook Comments

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

%d bloggers like this: